Breaking News
Home / National / ১৪৪ ধারা ভা’ঙার চেষ্টা কাদের মির্জার, প্রশাসনের বা’ধায় তর্কাতর্কি

১৪৪ ধারা ভা’ঙার চেষ্টা কাদের মির্জার, প্রশাসনের বা’ধায় তর্কাতর্কি

 

১৪৪ ধা’রা ভ’ঙ্গ করে নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জের বসুরহাট পৌরসভার রূপালী চত্বরে সংবাদ সম্মেলনের চেষ্টা করেছেন মেয়র আবদুল কাদের মির্জা। এ সময় নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সুপ্রভাত চাকমা ও জেলার অতিরি’ক্ত পুলিশ সুপার দীপক জ্যোতি খীসার সঙ্গে তর্কে জড়ান তিনি। তবে প্রশাসনের বাধায় শেষ পর্যন্ত সংবাদ সম্মেলন করতে পারেননি। এরপর কয়েক মিনিট রূপালী চত্বরে শোকসভার জন্য তৈরি মঞ্চে বসে থাকেন মেয়র কাদের মির্জা।

সোমবার (২২ ফেব্রুয়ারি) বিকেল ৩টার দিকে পৌরসভার রূপালী চত্বরে এ ঘটনা ঘটে। ওই স্থানে সংবাদ সম্মেলন ডাকেন কাদের মির্জা। নির্ধারিত সময়ে সেখানে হাজির হন। একই সময় সাংবাদিকদের মধ্যেও অনেকে সেখানে উপস্থিত হন। খবর পেয়ে সেখানে উপস্থিত হন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সুপ্রভাত চাকমা ও জেলার অতিরি’ক্ত পুলিশ সুপার দীপক জ্যোতি খীসা।

১৪৪ ধা’রা বলবৎ থাকায় রূপালী চত্বরে সংবাদ সম্মেলন করা যাবে না বলে কাদের মির্জাকে জানিয়ে দেন তারা। এ সময় কাদের মির্জা উচ্চ স্বরে তাদের সঙ্গে তর্কে জড়ান। একপর্যায়ে উপস্থিত সাংবাদিকদের সেখান থেকে সরিয়ে দেয় পুলিশ। কোম্পানীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মীর জাহেদুল হক বলেন, ১৪৪ ধা’রা ভ’ঙ্গ করে বসুরহাট রূপালী চত্বরের দলীয় কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলন করতে চেয়েছেন কাদের মির্জা।

কিন্তু আইনত তিনি ১৪৪ ধা’রা বলবৎ থাকাকালে সেখানে এটি করতে পারেন না। তাই নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট তাকে সংবাদ সম্মেলন করতে নি’ষেধ করেছেন। এতে রেগে গিয়ে তর্কে জড়ান তিনি। সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরসহ জ্যেষ্ঠ নেতাদের মেয়র আবদুল কাদের মির্জার কটূক্তির প্রতি’বা’দে সোমবার বিকেল ৩টায় রূপালী চত্বরে বি’ক্ষো’ভ কর্মসূচি ডাকে উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মিজানুর রহমানের নেতৃত্বাধীন একটি অংশ।

একই সময়ে একই স্থানে সাংবাদিক বুরহান উদ্দিনের মৃ’ত্যু’র প্রতি’বাদে শোক ও প্রতিবাদ সভা ডাকেন মেয়র কাদের মির্জা। দুই পক্ষের পাল্টাপাল্টি কর্মসূচি ঘোষণায় উত্তপ্ত হয়ে ওঠে বসুরহাট পৌর এলাকা। এ পরিস্থিতিতে সহিংসতা এড়াতে রোববার রাত ১১টার দিকে বসুরহাট পৌরসভা এলাকায় ১৪৪ ধা’রা জারি করে উপজেলা প্রশাসন।

কিন্তু ১৪৪ ধা’রা শেষে আবার সভা-সমাবেশ শুরু করেছে দুই পক্ষ। কোম্পানীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি-তদন্ত) রবিউল হক ঢাকা পোস্টকে বলেন, রূপালী চত্বরে সমাবেশ করছেন মেয়র আবদুল কাদের মির্জা। টেকের বাজারে প্রতি’বাদ সভা করছেন মিজানুর রহমান বাদল। এখন পর্যন্ত অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি। টেকের বাজার থেকে কোনো মি’ছিল যেন পৌর এলাকায় ঢুকতে না পারে, সেজন্য ক’ঠোর অবস্থানে রয়েছি আমরা।

About admin

Check Also

মহাসমাবেশসহ বিএনপির ১৯ দিনের কর্মসূচি ঘোষণা

  স্বাধীনতা সূবর্ণ জয়ন্তী উদযাপনে আগামী ৩০ মার্চ সোহরাওয়ার্দি উদ্যানে ‘সূবর্ণ জয়ন্তী’ মহাসমাবেশসহ মার্চ মাসে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *