Breaking News
Home / Others / সকালে খাবার খেয়ে হাসপাতালে পরিবার, রাতে বাড়িতে ঘটলো ভ’য়া’বহ ঘটনা

সকালে খাবার খেয়ে হাসপাতালে পরিবার, রাতে বাড়িতে ঘটলো ভ’য়া’বহ ঘটনা

 

টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে দুই বাড়িতে চু’’রি’র ঘটনা ঘটেছে। চো”রের দ’ল ওই দুই বাড়ি থেকে ৩১ ভরি স্বর্ণালংকার, ২৪ ভরি রুপার গহনা, নগদ ১২ লাখ ৫৭ হাজার টাকা ও মোবাইল ফোন লু’’ট করে নিয়ে গেছে। এরমধ্যে এক বাড়িতে প্রায় ২৫ লাখ টাকার মা’লামা’ল লু’’ট করা হয়েছে।

রোববার (৭ ফেব্রুয়ারি) রাতে মির্জাপুর উপজেলার মহেড়া ইউনিয়নের স্বল্পমহেড়া গ্রামের চান মিয়া ও মারুফের বাড়িতে এই চু’রি’র ঘটনা ঘটে। এলাকাবাসী ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, স্বল্পমহেড়া গ্রামের চান মিয়া, স্ত্রী নুরুন্নাহার, মেয়ে লিজা আক্তার ও ছেলে আব্দুল্লাহ রোববার সকালে রান্না করা মাছের তরকারি, আলু ও বেগুন ভর্তা দিয়ে ভাত খান।

এর কিছুক্ষণ পর তারা সবাই জ্ঞা’ন হা’রি’য়ে ফেলেন। পরে আশপাশের বাড়ির লোকজন তাদের উ’দ্ধা’র করে মির্জাপুর কুমুদিনী হাসপাতালে ভর্তি করেন। বাড়িতে কেউ না থাকার সুযোগে একইদিন রাতে চো’রের দ’ল তাদের বাড়িতে ঢুকে ২২ ভরি স্বর্ণালংকার, ২৪ ভরি রুপার গহনা এবং নগদ ১০ লাখ ৫৭ হাজার টাকা লু’’ট করে নিয়ে যায়।

একই রাতে পাশের মারুফের বাড়িতে চো’রে’র দল হা’না দেয়। সেখান থেকে তারা ৯ ভরি স্বর্ণালংকার, মোবাইল ফোন ও নগদ ২ লাখ টাকা লু’ট করে। এ ঘটনায় লুবনা আক্তার নামের এক নারী মির্জাপুর থানায় লি’খিত অ’ভিযো’গ দিয়েছেন। হাসপাতালে চিকিৎসাধীন লিজা আক্তার ও আব্দুল্লাহ বলেন,

কে বা কারা আমাদের বাড়িতে গিয়ে খাবারে চে’ত”’নানা’শ’’ক ও’ষুধ দিয়েছেন তা আমরা জানি না।বিষয়টি প’’রি’কল্পিত। ১৭ বছর আগে একইভাবে তাদের বাড়িতে চু’’রি’র ঘটনা ঘটেছিল বলেও তারা জানান। মহেড়া ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) চেয়ারম্যান মো. বাদশা মিয়া জানান,

চো’’রে’র দল পরি’কল্পি”তভাবে পরিবারের সদস্যদের খাবারের সঙ্গে চে’ত’’না’না’শক ওষুধ খাইয়ে চু’’রি’র ঘটনা ঘটিয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। মির্জাপুর থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মো. ফয়েজ জানান, অ’’ভিযো’গ পাওয়ার পর ওই বাড়ি দু’টি পরিদর্শন করা হয়েছে। বিষয়টি তদ’’ন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

About admin

Check Also

সৌদি-পাকিস্তান সম্পর্ক অবশেষে জোড়া লাগছে

  পরম মিত্র ডোনাল্ড ‘আবু ইভাঙ্কা’ ট্রাম্পের সময়ে অনেক বিষয়েই ওয়াশিংটনের কাছ থেকে রীতিমতো অন্ধ …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *