Home / National / খালেদা মঈনকে সবুজ সংকেত দিলেন

খালেদা মঈনকে সবুজ সংকেত দিলেন

 

প্যাট্রিশিয়া বিউটিনেসের সংগে বৈঠক শেষে ক্যান্টমেন্টে ফিরে এলেন জেনারেল মঈন। যেতে যেতেই ডিজিএফআই প্রধান এবং তার ঘনিষ্ট কয়েকজন সেনা কর্মকর্তাকে সেনা সদরে ডেকে পাঠালেন মঈন। বৈঠক শুরু হলো খুবই অনানুষ্ঠানিক ভাবে। জেনারেল মঈন নির্বাচন নিয়ে সেনা কর্মকর্তাদের মনোভাব জানতে চাইলেন। সকলেই উদ্বিগ্ন। এরপর মঈন মার্কিন মনোভাব জানালেন। একজন সেনা কর্মকর্তা প্রশ্ন করলেন ‘চীফ, ইজ ইট এ ক্যু?’ মঈন বললেন ‘নো, নট এট অল।’ আমরা শুধু কেয়ার টেকার গর্ভরমেন্ট রিপ্লেস করবো।

একটা এফিসিয়েন্ট, ক্যাপাবল কেয়ার টেকার গর্ভরমেন্ট বসাবো। তারা নির্বাচন করবে।’ একজন প্রশ্ন করলেন ‘এটা কি আওয়ামী লীগের পক্ষে যাবে না?’ মঈন মুচকি হেঁসে বললেন ‘ নো, নেভার।’ বৈঠকের পর ডিজিএফআই চীফ জেনারেল রুমী থাকলেন। মঈন তাকে পুরো বিষয়টা আদ্যোপান্ত বললেন। জেনারেল রুমী বললেন ‘বিষয়টা ম্যাডামকে জানানো প্রয়োজন।’ তার আগে তারা খালেদা জিয়ার ভাই মেজর (অব.) সাঈদ ইস্কান্দারের সঙ্গে কথা বলার সিদ্ধান্ত নিলেন। সাঈদ ইস্কান্দারের বাসভবনে জেনারেল মঈন গেলেন রাত আটটার পর। জেনারেল রুমী এবং জেনারেল মাসুদ উদ্দিন চৌধুরীও ঐ বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন। কথা বললেন মঈন।

বললেন এই পরিস্থিতিতে নির্বাচন হবে, দেশে গণঅভ্যুত্থান ঘটবে। আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসবে। একটা গ্যাপ দিয়ে নির্বাচন করে আবার বেগম জিয়াকে ক্ষমতায় আনা যাবে। এই গ্যাপে একটা আর্মি ব্যাকড কেয়ার টেকার গর্ভমেন্ট থাকবে। এটা বিএনপির জন্য ভালো হবে। ইন দ্যা মিন টাইম, আওয়ামী লীগ উইল বি ক্রাশড।’ প্রস্তাবটা সাঈদ ইস্কান্দারেরও পছন্দ হলো কিন্তু সাঈদ ইস্কান্দার এ বিষয়ে কোন সিদ্ধান্ত দিলেন না। তিনি খালেদা জিয়ার সঙ্গে কথা বললেন। বেগম জিয়া তখন মঈনুল রোডের বাসায়।

বেগম জিয়া মঈনকে নিয়ে তার বাসায় আসার নির্দেশ দিলেন। আর্মি চীফের গাড়িতে নয়, সাঈদ ইস্কান্দারের প্রাডোতে চড়ে রাত সাড়ে দশটায় জেনারেল মঈন খালেদার বাসায় গেলেন। আর্মি ব্যাকড একটা কেয়ার টেকার গর্ভরমেন্ট বর্তমান পরিস্থিতি শান্ত করবে। এরপর নির্বাচন হবে। ঐ নির্বাচনে আবার বিএনপি আসবে। বেগম জিয়া এই প্রস্তাবে সায় দিলেন। রাত ১২টর পর খালেদার সবুজ সংকেত নিয়ে বেরিয়ে গেলেন জেনারেল মঈন্

About admin

Check Also

সভামঞ্চ গুটিয়ে নিলেন কাদের মির্জা

  নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার রূপালী চত্বর থেকে সেই সভামঞ্চটি গুটিয়ে নিয়েছেন বসুরহাট পৌরসভার মেয়র আবদুল …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *