Breaking News
Home / National / যোগ্যতা ও উপার্জনঃ সিঙ্গাপুর প্রবাসী

যোগ্যতা ও উপার্জনঃ সিঙ্গাপুর প্রবাসী

যোগ্যতা ও উপার্জনঃ ভাবছেন আপনার যোগ্যতা অনুযায়ী উপার্জন করতে পারতেছেন না? ভাবনাটা ভুল! হাতেগোনা কিছু লোক ব্যতীত আমরা প্রত্যেকেই আমাদের যোগ্যতা অনুযায়ী উপার্জন করছি। প্রশ্ন করতে পারেন- তাহলে কি আমরা আরো বেশি উপার্জন করার আশা করতে পারিনা? উত্তর- হ্যা পারি।

তবে আমাদের নিজেদেরকে বেশি উপার্জনের জন্যে নতুন করে তৈরী করতে হবে বা গড়তে হবে। আসুন ছোট্ট একটা উদাহরন দেই- মনে করেন একজন জেনারেল ওয়ার্কার যখন সিঙ্গাপুরে আসে তখন এভারিজ বেতন থাকে দৈনিক ১৬ থেকে ১৮ ডলার। ঠিক ততক্ষন সে বেশি আশা করতে পারেনা যতক্ষন না সে একজন টেকনিশিয়ান হিসেবে নিজেকে গড়ে তুলতে পারে।

তারমানে একজন জেনারেল ওয়ার্কার থেকে নিজেকে টেকনিশিয়ান হিসেকে গড়ে তুলার কারনেই কিন্তু আমাদের বেতন মোটামোটি এভারিজে ২৫-৩০ ডলার হয়ে থাকে। এর বেশি খুব কম শ্রমিকরাই পেয়ে থাকি। আর যারা পায় তারা আবার নিজেদেরকে আরো বেশি দক্ষতা দিয়ে গড়ে নিয়েছে। নামের পাশে যোগ করেছে নতুন কোন সার্টিফিকেট বা দক্ষতা। তাই আমি মনে করি, আমাদের যা উপার্জন করছি তা আমাদের যোগ্যতা অনুযায়ী আমরা উপার্জন করছি।

এবং উপার্জন বাড়াতে হলে আমাদের নিজেদেরকেও গড়তে হবে নতুন করে। আমি নিজে পারিবারিক দায়বদ্ধতার কারনে ইচ্ছে থাকা স্বত্বেও পারছিনা কোন কোর্স বা ডিপ্লোমা করতে। আমার মতন অনেকেরই একই অবস্থা। তবে যাদের দ্বারা সম্ভব কোন কোর্স বা ডিপ্লোমা করা তারা অবশ্যই করে নেওয়ার চেষ্টা করবেন। যারা আমার অবস্থাতে আছেন তারাও চেষ্টা করবেন আশা করি। মনে রাখবেন, পৃথিবী এগিয়ে যাচ্ছে।

আমাদেরকেও পাল্লা ধরে এগুতে হবে। কোন একদিন ৫ হাজার টাকা বেতনে চাকরি করে সংসার চালাতাম। এখন ৬০-৭০ হাজার হাজার টাকা উপার্জন করেও সংসার একই ভাবে চলে। ৯ বছরে উপার্জন বেড়েছে ১২ গুন বেশি। চাহিদাও বেড়েছে সমান সমান। আমি যদি এই উপার্জনে সীমাবদ্ধ থাকি তাহলে অদুড় ভবিষ্যতে চাহিদা বাড়বে আমার ক্ষমতা হ্রাস পাবে চাহিদা মেটানোর। নিজেকে নিয়ে ভাবুন। গড়ে তুলার চেষ্টা করুন নিজেকে। আল-আমিন সিঙ্গাপুর প্রবাসী

About admin

Check Also

মালয়েশিয়ায় আলু রপ্তানি শুরু, নতুন মাইলফলকের দিকে বাংলাদেশ

  মালয়েশিয়ায় বাংলাদেশ হাইকমিশনের তত্ত্বাবধানে কৃষি মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন বাংলাদেশ কৃষি উন্নয়ন কর্পোরেশনের (বিএডিসি) উৎপাদিত আলু …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *